আইপিএল ২০২৪ নিলামে বিশ্বকাপ তারকা যারা তালিকাভুক্ত হতে পারেন

Home » আইপিএল ২০২৪ নিলামে বিশ্বকাপ তারকা যারা তালিকাভুক্ত হতে পারেন

বিশ্বকাপের সমাপ্তির পর ক্রিকেটবিশ্ব এখন ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) সপ্তদশ আসরের দিকে তাকিয়ে আছে।

টুর্নামেন্ট শুরু হতে এখনও বেশ কয়েক মাস বাকি,তবে আপাতত যাবতীয় আগ্রহ ‘মিনি’ আইপিএল ২০২৪ নিলামকে ঘিরে।

গত বছরের মিনি নিলামে স্যাম কারান, বেন স্টোকস,ক্যামেরন গ্রিনদের মতো তারকা খেলোয়াড়রা বিশাল অর্থে বিক্রি হয়েছিলেন।

এবার দেশ ছাড়িয়ে বিদেশে পাড়ি দিচ্ছে আইপিএল ২০২৪ নিলাম। ১৯ ডিসেম্বর দুবাইতে সম্মুখসমরে নামতে চলেছে দশ ফ্র্যাঞ্চাইজি।

গত আইপিএল নিলামে অব্যবহৃত অর্থ এবং ক্রিকেটারদের রিলিজ-রিটেনশন তালিকা প্রকাশের পর যে অর্থ দলগুলির হাতে থাকবে, তা ব্যবহার করে নিলাম থেকে নতুন ক্রিকেটার সই করাতে পারবে।

২০২৪ মরসুম থেকে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড প্রতি দলের স্যালারি ক্যাপ ৯৫ কোটি থেকে বাড়িয়ে ১০০ কোটি করেছে। ফলে দলগুলির ‘অকশন পার্সে বাড়তি ৫ কোটি টাকাও যুক্ত হচ্ছে।’

আইপিলের নিলামে  চূড়ান্ত রিলিজ-রিটেনশন তালিকা প্রকাশের আগে ক্রিকেটার ট্রেডিং এর সুযোগ দেওয়া হয়েছে দশ ফ্র্যাঞ্চাইজিকেই। ২৬ তারিখ অবধি চালু থাকবে ট্রেডিং উইন্ডো।

বেশ কয়েকজন তারকা রিলিজ তালিকায় ঠাঁই পেতে পারেন

আইপিএলের সপ্তদশ আসরের রিলিজ-রিটেনশন তালিকা প্রকাশের আগে দলগুলি তাদের অর্থনৈতিক অবস্থার কথা বিবেচনা করে তালিকা তৈরি করছে।

বেশ কয়েকজন তারকাকে রিলিজ করার সম্ভাবনা রয়েছে। প্রীতি জিন্টার দল পাঞ্জাব কিংসের হাতে রয়েছে ১২.২০ কোটি টাকা।

শিখর ধাওয়ান, ভানুকা রাজাপক্ষের মত তারকাকে ছেড়ে দিলে পাঞ্জাবের অকশন পার্সে অর্থের পরিমাণ বাড়বে।

  • সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হাতে রয়েছে ৬ কোটি ৫৫ লাখ টাকা।
  • তারাও হ্যারি ব্রুক বা মায়াঙ্ক আগরওয়ালের মত কাউকে বাইরের পথ দেখাতে পারে।
  • রানার্স আপ গুজরাত টাইটান্সের হাতে রয়েছে ৪.৫৫ কোটি টাকা।
  • গত মরসুমে ব্যর্থ হয়েছিলো দিল্লি ক্যাপিটালস। হাতে থাকা ৪.৪৫ কোটি টাকা তারা সঠিকভাবে ব্যবহার করতে চাইবে।
  • ইতিমধ্যেই ট্রেডিং উইন্ডোতে সক্রিয় অংশগ্রহণ দেখা গিয়েছে লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টসের। তাদের হাতে রয়েছে ৩.৫৫ কোটি টাকা।
  • রাজস্থান রয়্যালসের হাতে ছিলো ৩.৩৫ কোটি। আবেশ খান দলে আসায় তাদের অকশন পার্স আপাতত প্রায় নিঃশেষ।
  • তাদের বেশ কয়েকজন তারকাকে রিলিজ করতে হতে পারে।
  • রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হাতে রয়েছে ১.৭৫ কোটি টাকা।
  • কলকাতা নাইট রাইডার্সের হাতে রয়েছে ১.৬৫ কোটি টাকা। শোনা যাচ্ছে আন্দ্রে রাসেল, সুনীল নারাইনদের মত মহাতারকাদের ছেড়ে দিতে পারে তারা।
  • গতবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংসের হাতে রয়েছে ১.৫০ কোটি টাকা। ১৬.২৫ কোটিতে নেওয়া বেন স্টোকসকে তারা বাতিল করেন কিনা, সেই নিয়ে থাকছে কৌতূহল।
  • সবচেয়ে কম পরিমাণ অর্থ রয়েছে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের হাতে। আপাতত ৫৫ লক্ষের পুঁজি রয়েছে মুকেশ আম্বানীর দলের। তবে রিলিজ তালিকায় চমকে দিতে পারে তারা।

জোফ্রা আর্চারকে বাতিলের দলে রাখতে পারে তারা। একই সাথে অর্জুন তেন্ডুলকর, ডিওয়াল্ড ব্রেভিসদেরও ছেঁটে ফেলা হতে পারে।

শোনা যাচ্ছে অধিনায়ক রোহিত শর্মার বদলে হার্দিক পান্ডিয়াকে ট্রেডিং-এর জন্য গুজরাত ফ্র্যাঞ্চাইজির সাথে আলোচনা চালাচ্ছে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স।

রিলিজ-রিটেনশন তালিকা প্রকাশের পর দলগুলি তাদের বাজেট এবং দল গঠনের নীতির আলোকে নিলামে অংশ নেবে।

নিলামের তারকা হতে পারেন

২০২৩ সালের আইপিএল নিলামের দিনটি ক্রিকেটারদের জন্য একটি বিশেষ দিন। এই দিনটিতে তাদের ক্যারিয়ারের ভবিষ্যৎ নির্ধারিত হতে চলেছে।

এবারের নিলামে মোট ৫৯০ জন ক্রিকেটার অংশগ্রহণ করবেন।

রচিন রবীন্দ্র এর জন্য জোর লড়াই

নিউজিল্যান্ডের ভারতীয় বংশোদ্ভুত অলরাউন্ডার রচিন রবীন্দ্র বিপুল অর্থে আইপিএলের আঙিনায় পা রাখতে পারেন।

বাম হাতি ব্যাটিং-এর পাশাপাশি বাম হাতি স্পিন বোলিং-এ সাবলীল রচিন। বিশ্বকাপে ৩টি শতরান ও ৫৭৮ রান করেছেন তিনি।

আইপিএল ২০২৪ এর নিলামে রচিনকে নিয়ে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের মধ্যে জোর লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা।

জেরাল্ড ক্যুৎসিয়ে‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ তালিকায়

আইপিএল ২০২৪ এর নিলামে‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ তালিকায় থাকবেন দক্ষিণ আফ্রিকার জেরাল্ড ক্যুৎসিয়ে।

২৩ বছরের ক্যুৎসিয়ে নজর কেড়েছেন তাঁর দুর্ধর্ষ ফাস্ট বোলিং-এর জন্য। নিয়মিত নিয়ন্ত্রণ বজায় রেখেছেন।

১৪৫-১৫০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা বেগে বোলিং করেছেন। বিশ্বকাপে ২০ উইকেট নিয়েছেন।

ট্রাভিস হেড প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজির চাহিদার মুখ

২০২৩ বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল ও ফাইনালে ‘প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ’ হওয়া এই অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার আইপিএল ২০২৪ এর নিলামে প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজিতে অন্তর্ভুক্ত হতে চাইবে।

বড় ম্যাচের এই খেলোয়াড় শুধু ওপেনিংয়ে প্রতিপক্ষের বোলিং আক্রমণকে ধ্বংসই করেন না, প্রয়োজনে ধীর গতির ইনিংস দিয়ে দলকে জেতানোর ক্ষমতাও রাখেন।

মিচেল স্টার্ক অন্যতম ব্যয়বহুল ফাস্ট বোলার

অস্ট্রেলিয়ার এই ফাস্ট বোলার এর আগেও আইপিএল খেলেছেন। এবার আবার আইপিএলে তার অংশগ্রহণ নিয়ে আলোচনা তুঙ্গে।

স্টার্ক যদি আইপিএল ২০২৪ এর নিলামে জন্য নাম নথিভুক্ত করেন তবে তিনি অবশ্যই এই মরসুমের অন্যতম ব্যয়বহুল ফাস্ট বোলার হতে পারেন।

দিলশান মাদুশঙ্কা আইপিএল নিলামেভালো দাম পেতে পারে

২০২৩ বিশ্বকাপে ৯ ম্যাচে ২১ উইকেট নিয়েছেন শ্রীলঙ্কার এই ফাস্ট বোলার। এবারের বিশ্বকাপে তৃতীয় সর্বোচ্চ উকেট শিকারী ছিলেন তিনি।

শ্রীলঙ্কার হয়ে একাই এই খেলোয়াড়ের পারফরমেন্স ছিল পুরো টুর্নামেন্ট জুড়েই অসাধারণ। আইপিএল ২০২৪ এর নিলামে ভালো দাম পেতে পারে দিলশান মাদুশঙ্কা।

ড্যারিল মিচেল নিলামে একজন জনপ্রিয় পছন্দ হবেন

২০২৩ সালের আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ড্যারিল মিচেল দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেন। তিনি ৯ ম্যাচে ৪০.৫৭ গড়ে ২৭৬ রান করেন এবং ৮ উইকেট নেন।

তার এই পারফরম্যান্সের জন্য তাকে টুর্নামেন্টের সেরা অলরাউন্ডার হিসেবে নির্বাচিত করা হয়।ড্যারিল মিচেল একজন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান এবং লেগস্পিন বোলার।

এই দুটি অবস্থানে আইপিএলে অনেক দলেরই চাহিদা রয়েছে।

তাই, ড্যারিল মিচেলকে আইপিএল ২০২৪ এর নিলামে ভালো দাম পেতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

১৯ ডিসেম্বর দুবাইতে অনুষ্ঠিত হতে চলা আইপিএল ২০২৪ এর নিলামে কোন দল কোন তারকাকে পেতে পারে,তা নিয়ে এখনই ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যে ব্যাপক কৌতূহল। ২০২৩ সালের মার্চের শেষে বা এপ্রিলের প্রথমে শুরু হতে পারে আইপিএলের সপ্তদশ আসর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *