আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩: মূল খেলোয়াড়রা এই টুর্নামেন্ট মিস করবেন

Home » আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩: মূল খেলোয়াড়রা এই টুর্নামেন্ট মিস করবেন

আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপ ২০২৩  একটি খুবই উত্তেজক ও রোমাঞ্চকর টুর্নামেন্ট হতে চলেছে সমস্ত ক্রিকেট সমর্থকদের জন্যে।

সাথে, এই টুর্নামেন্ট ততধিক গুরুত্বপূর্ণ সমস্ত দেশের ক্রিকেটারদের জন্য।  

তবে এটি হতাশার যে প্রতি বছরের মতো এবছরেও বেশ কয়েকটি বিশিষ্ট খেলোয়াড় ইনজুরির অথবা অন্য কোনো কারণেএবারের আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপ মিস করতে চলেছে।

তাদের এই অনুপস্থিতি কেবল তাদের নিজ নিজ দলের প্রস্তুতিকেই প্রভাবিত করেনি বরং সারা বিশ্বের ভক্তদেরও অনেক ক্ষেত্রেই হতাশ করেছে।

এবারে আমরা দেখে নেবো যে প্রথম দলের প্লেয়াররা আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপ ২০২৩ মিস করতে চলেছে, তার একটি তালিকা:

১. অ্যানরিক নর্টজে (দক্ষিণ আফ্রিকা)

এবছরেও, দক্ষিন আফ্রিকান ফাস্ট বোলার অ্যানরিচ নর্টজে ক্রিকেটের সর্বশ্রেষ্ঠ মঞ্চে নিজের দেশকে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ হারিয়েছেন।

ঠিক যেমনটি ইংল্যান্ডে 2019 আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপের সময় হয়েছিল, নর্টজে দুর্ভাগ্যবশত পিঠের চোটে ভুগছেন যা তাকে 5 অক্টোবর থেকে শুরু হতে যাওয়া পুরো টুর্নামেন্ট থেকে বাদ করে দিয়েছে।

২. জোফ্রা আর্চার (ইংল্যান্ড)

জোফরা আর্চারের বিশ্বমঞ্চে আত্মপ্রকাশের পর থেকে, তিনি বারবার আঘাতের সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন।

উল্লেখযোগ্যভাবে তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার জুড়েই ক্রমাগত কনুইয়ের সমস্যায় ভুগছেন তিনি।

 আর্চার চার বছর আগে আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপে ইংল্যান্ডের বিজয়ী অভিযানের সময় তিনি ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী ছিলেন।

৩. ঋষভ পান্ত (ভারত)

ভারতের অন্যতম প্রতিভাবান উইকেট-রক্ষক-ব্যাটসম্যান ঋষভ পন্ত। ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০২২-এ তার নিজ শহর রুরকিতে গাড়ি চালানোর সময় একটি বড় দুর্ঘটনার শিকার হন।

এই ট্র্যাজেডি তাকে প্রায় এক বছরের জন্য সমস্ত ধরনের ক্রিকেট থেকে দূরে সরিয়ে দেয়। যদিও তিনি বেঙ্গালুরুতে তার রিকভারিতে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি করেছেন।

পন্ত ২০২৩ সালের আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপে অনুপস্থিত থাকবেন৷ যে অভাব হয়ত আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপেও ভারতীয় দল অনুভব করতে পারে।

৪. অক্ষর প্যাটেল (ভারত)

অক্ষরের, এশিয়া কাপ ২০২৩ এর সময় একটি কোয়াড্রিসেপ টিয়ার হয়েছিলো এবং আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপের জন্য তিনি সময়মতো রিকভারি করতে ব্যর্থ হন।

অক্ষরের বদলি হিসেবে আর অশ্বিনকে ভারতের স্কোয়াডে রাখা হয়েছে।

৫. মাইকেল ব্রেসওয়েল (নিউজিল্যান্ড)

মাইকেল ব্রেসওয়েল, একজন প্রতিভাবান কিউই অলরাউন্ডার।

 ভারতে অনুষ্ঠিতব্য আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপ ২০২৩-এর এমন একজন উদীয়মান তারকা যার উপর সকলের ঘনিষ্ঠ নজর থাকতো।

 একজন খেলোয়াড় হিসাবে সকলেরই মনোযোগ আকর্ষন করেছিলেন।

তবে, ইংল্যান্ডের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়ার সময় তাঁর ইনজুরি হলে তাকে পুরো প্রতিযোগিতাকেই মিস করতে বাধ্য করে।

ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেটে ওরচেস্টারশায়ারের প্রতিনিধিত্ব করার সময় ব্রেসওয়েল অ্যাকিলিসের ডান দিকে আর একটি চোট পান।

 তার এই দুর্ভাগ্যজনক আঘাতের ফলে, রচিন রবীন্দ্রকে তার বদলি হিসেবে আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপে মাঠে নামার সুযোগ দেওয়া হয়।

৬. জেসন রয় (ইংল্যান্ড)

আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপ রয়ের জন্য আবেগের একটি রোলার কোস্টার ছিল, কারণ তাকে প্রথমে ইংল্যান্ডের অস্থায়ী ওয়ার্ল্ডকাপ স্কোয়াডে রাখা হয়েছিল।

তারপর যখন ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা তাদের চূড়ান্ত ১৫ জনের নাম চুড়ান্ত হয় তখন তাকে বাদ দেওয়া হয়েছিল।

গত মাসে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের সময় পিঠে টানের কারণে আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপের দলে তার অন্তর্ভুক্তি থেকেও বিরতি পড়ে যায়।

৭.নাসিম শাহ (পাকিস্তান)

পাকিস্তানের নাসিম শাহকে ভারতে আসন্ন আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপ ২০২৩-এ এক অন্যতম প্রতিভা হিসাবে বিবেচনা করা হয়েছিল।

এশিয়া কাপ ২০২৩ সুপার ৪ রাউন্ডে ভারতের বিপক্ষে খেলতে গিয়ে কাঁধে চোট পান নাসিম শাহ।

শাহীন আফ্রিদি এবং হারিস রউফের সাথে পাক পেস আক্রমণের অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে ওঠা 20 বছর বয়সী নাসিম শাহকে রিপ্লেস করার জন্য হাসান আলীকে বিবেচনা করা হয়েছে।

৮. ওয়ানিন্দু হাসরাঙ্গা (শ্রীলঙ্কা)

স্পিন বোলিং অলরাউন্ডার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা লঙ্কান প্রিমিয়ার লিগে অসাধারণ পারফরম্যান্স দেখিয়েছেন।

হাসারাঙ্গা একটি হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে ভুগছিলেন যেখান থেকে ফিরে আসার জন্য সম্ভাব্যভাবে তার অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হতে পারে।

দুর্ভাগ্যবশত, এই ইনজুরির কারণে আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপে শ্রীলঙ্কা দলে তিনি অনুপস্থিত থাকবেন।

৯. দুষ্মন্ত চামিরা (শ্রীলঙ্কা)

৩১ বছর বয়সী শ্রীলঙ্কান এক্সপ্রেস বোলার দুষ্মন্ত চামিরা  ও আসন্ন আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপে অনুপস্থিত থাকবেন।

গোড়ালির চোটের কারণে গত বছর অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ডকাপও মিস করেছিলেন চামেরা।

কিছু আশা থাকলেও শেষপর্যন্ত তার এই আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপের দলে অন্তর্ভুক্তি ঘটেনি।

১০. এবাদত হোসেন (বাংলাদেশ)

বাংলাদেশী পেস বোলার এবাদত হোসেন এসিএল ইনজুরির কারণে ২০২৩ এশিয়া কাপে অংশগ্রহণ করতে পারেননি।

 দুর্ভাগ্যবশত, এটি প্রকাশ করা হয়েছে যে তার এই চোট থেকে সের ওঠার জন্য তার অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হবে।

এজন্যে তাকে আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপের জন্যও বাদ দেওয়া হয়েছে।

১১. তামিম ইকবাল (বাংলাদেশ)

ওয়ানডে ফরম্যাটে বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল ব্যাটসম্যান এবং তাদের সর্বকালের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান গত সপ্তাহে স্কোয়াড ঘোষণা করার সময় বাদ পড়েছিলেন।

নির্বাচকরা বলেছেন যে ৩৪-বছর-বয়সীর ক্রমাগত পিঠের চোট তাকে আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপের চূড়ান্ত দল থেকে বাদ দিয়েছেন কারণ তারা ৪৬ দিনের টুর্নামেন্টে “ঝুঁকি নিতে” চায় না।

১২. সিসান্দা মাগালা (দক্ষিণ আফ্রিকা)

৩২ বছর বয়সী ফাস্ট বোলারও ইনজুরিতে পড়েছিলেন এবং ২০২৩ সালের আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার ১৫-সদস্যের স্কোয়াডে আন্দিলে ফেহলুকওয়েওর স্থলাভিষিক্ত হন।

সিসান্দা মাগালার বাম হাঁটুতে সমস্যা রয়েছে এবং তার আরও মূল্যায়ন ও চিকিৎসার প্রয়োজন হবে।

১৩. অ্যাশটন আগার (অস্ট্রেলিয়া)

বাঁহাতি স্পিনার অ্যাশটন আগার কাফের চোটের কারণে ২০২৩ সালের আইসিসি ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপ মিস করবেন।

একটি রিপোর্ট অনুসারে, আগর প্রাথমিকভাবে প্রাক-মৌসুমে কাফের স্ট্রেনের শিকার হয়েছিলেন এবং দক্ষিণ আফ্রিকায় টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে বাদ পড়েছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *