নাজমুল হোসেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের রেকর্ড বই নতুন করে লিখছেন

Home » নাজমুল হোসেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের রেকর্ড বই নতুন করে লিখছেন

বৃহস্পতিবার সিলেটে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে নাজমুল হোসেন শান্তের সেঞ্চুরি ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটের ইতিহাসে একটি বিশেষ মুহূর্ত।

তিনি অধিনায়ক হিসেবে অভিষেকে সেঞ্চুরি করা প্রথম বাংলাদেশি ক্রিকেটার হলেন। এছাড়াও, তিনি ২৪ ম্যাচে পাঁচটি টেস্ট সেঞ্চুরি করার দ্রুততম বাংলাদেশি হলেন।

নাজমুল হোসেন সেঞ্চুরি বাংলাদেশকে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংসে ২০৫ রানের লিড নিতে সাহায্য করে।

বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংস শুরুর পর, শান্ত আবারও তার ব্যাট চালিয়ে যান এবং  ১০৪ রানের ইনিংস খেলেন। এটি তার টেস্ট ক্যারিয়ারে পঞ্চম সেঞ্চুরি।

শান্ত ১০৪ রান করে বাংলাদেশকে তৃতীয় দিনের শেষ পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যেতে সাহায্য করেছিলেন।

তিনি ৯৪ বলে ১০টি চার এবং ১টি ছক্কায় এই রান করেন। তার ইনিংসটি ছিল দৃঢ়নিশ্চয়তা এবং পরিশ্রমের এক মিশ্রণ।

তিনি নিউজিল্যান্ডের বোলারদের বিরুদ্ধে কঠোরভাবে লড়াই করেছিলেন এবং তাদের আক্রমণকে ভেঙে দিয়েছিলেন।

নাজমুল হোসেন ইনিংসের শুরুটা ছিল ধীর। তিনি প্রথম ১০ ওভারে মাত্র ১৭ রান করেছিলেন। কিন্তু, ১১তম ওভারে তিনি মোহাম্মদ শামিকে একটি চার এবং একটি ছক্কা হাঁকিয়ে তার ইনিংসকে গতি দেন।

এরপর তিনি আরও আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন এবং নিউজিল্যান্ডের বোলারদের উপর চাপ সৃষ্টি করেন।

নাজমুল হোসেন ইনিংসের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য দিক ছিল তার ধৈর্য। তিনি নিউজিল্যান্ডের বোলারদের কাছ থেকে কিছু ভুল বল খুঁজে বের করার জন্য অপেক্ষা করেছিলেন এবং সেগুলোকে পুরস্কৃত করেছিলেন।

তিনি নিউজিল্যান্ডের বোলারদের কাছ থেকে ৮টি বাউন্ডারি হাঁকিয়েছিলেন, যার মধ্যে ৭টিই ছিল চার।

শান্তর সেঞ্চুরি বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক। এটি দলের জন্য তার নেতৃত্বের গুণাবলী প্রদর্শন করে এবং প্রমাণ করে যে তিনি একজন বিশ্বমানের ব্যাটসম্যান।

নাজমুল হোসেন অধিনায়কত্বের অভিষেক ম্যাচেই এমন দুর্দান্ত পারফরম্যান্স বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে একটি নতুন অধ্যায়ের সূচনা করেছে।

তিনি তার অভিষেক ম্যাচেই বাংলাদেশের একজন টেস্ট অধিনায়কের সেরা ইনিংসের রেকর্ড গড়েন। এর আগে, সাকিব আল হাসান ২০১৩ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৯৬ রান করেছিলেন।

শান্তের এই অর্জনের পর অনেকেই মনে করছেন, তিনি ভবিষ্যতে বাংলাদেশের ক্রিকেটের অন্যতম সেরা অধিনায়ক হতে পারেন।

তার অধিনায়কত্বে বাংলাদেশ টেস্ট ক্রিকেটে আরও ভালো করতে পারবে।

নাজমুল হোসেন শান্তের প্রারম্ভিক জীবন

নাজমুল হোসেন শান্তের জন্ম ২৫ই আগস্ট ১৯৯৮ রাজশাহীর রণহাটে। তার বাবার নাম মোহাম্মদ আলী এবং মায়ের নাম আনোয়ারা বেগম।

ছোটবেলা থেকেই শান্তের ক্রিকেট খেলায় আগ্রহ ছিল। তিনি তার গ্রামের বন্ধুদের সাথে খেলতেন এবং তার বাবা-মা তাকে সবসময় উৎসাহিত করতেন।

৪ বছর ডেটিং করার শান্ত ২০২০ সালের১১ জুলাই লকডাউনের সময় সাবরিন সুলতানা রত্নাকে বিয়ে করেন।২৫ই আগস্ট ২০২৩ শান্ত তার ২৫তম জন্মদিনে ছেলের বাবা হয়েছেন।

নাজমুল হোসেন শান্তের ক্রিকেট প্রশিক্ষণ

শান্তের ক্রিকেট প্রশিক্ষণ শুরু হয় ক্লেমন রাজশাহী ক্রিকেট একাডেমিতে। একাডেমিটি তার বাড়ি থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে ছিল।

তাই তিনি সেখানে যাওয়ার জন্য প্রতিদিন সাইকেল চালাতেন এবং হেঁটে যেতেন। একাডেমিতে তার প্রশিক্ষক ছিলেন ক্লেমন ক্রিকেট একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান কোচ মোহাম্মদ ইউসুফ।

নাজমুল হোসেন শান্তের ক্রিকেট ক্যারিয়ার

নাজমুল হোসেন শান্ত একজন বাংলাদেশী ক্রিকেটার। তিনি একজন ডানহাতি ব্যাটসম্যান এবং ডানহাতি অফ-ব্রেক বোলার।

তিনি ২০১৬-১৭ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে খেলে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আত্মপ্রকাশ করেন।

নাজমুল হোসেন শান্ত ঘরোয়া ক্রিকেট ক্যারিয়ারের উল্লেখযোগ্য অর্জন

  • ২০১৭-১৮ জাতীয় ক্রিকেট লীগে ঢাকা মেট্রোপলিসের বিপক্ষে রাজশাহী বিভাগের হয়ে ব্যাটিং করে, বাংলাদেশের একটি ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ম্যাচে ৩৪১ রান করে সর্বোচ্চ উদ্বোধনী জুটি গড়েন।
  • ২০১৭-১৮ ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে ১৬ ম্যাচে ৭৪৯ ​​রান সহ শীর্ষস্থানীয় রান স্কোরার ছিলেন।
  • ২০২০-২১ বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে, নাজমুল মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর হয়ে ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করেন।
  • ২০২২-২৩ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে সিলেট স্ট্রাইকার্সের হয়ে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন, চারটি অর্ধশতক সহ ৫১৬ রান করেছিলেন। তিনিই প্রথম বাংলাদেশি খেলোয়াড় যিনি বিপিএলের এক মৌসুমে ৫০০ রান করেন।

নাজমুল হোসেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে উল্লেখযোগ্য অর্জনগুলি

  • ২০২১ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে তার প্রথম সেঞ্চুরি, ১৬৩ রান
  • ২০২১ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে তার দ্বিতীয় সেঞ্চুরি, ১২৪ রান
  • ২০২২ সালের আইসিসি পুরুষদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক, ১৮০ রান
  • ২০২৩ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ODI ক্রিকেটে তার প্রথম অর্ধশতক, ৫১ রান
  • ২০২৩ সালে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে দুটি সেঞ্চুরি, ১৪৬ এবং ১২৪ রান

নাজমুল হোসেন বিপিএল ২০২২-২৩ এর সেরা খেলোয়াড় হিসেবে পারফরম্যান্স

  • টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক: ৫১৬ রান (চারটি অর্ধশতক সহ)
  • প্রথম বাংলাদেশি খেলোয়াড় যিনি বিপিএলের এক মৌসুমে ৫০০ রান করেন
  • গড়: ৩৯.৬৯
  • স্ট্রাইক রেট: ১১৬.৭৪
  • চতুর্থ সর্বোচ্চ চার মারার রেকর্ড: ৫৭ টি
  • পঞ্চম সর্বোচ্চ ছক্কা মারার রেকর্ড: ১২ টি

নাজমুল হোসেন পারফরম্যান্স বিপিএলের ইতিহাসে একটি উল্লেখযোগ্য মাইলফলক। তিনি প্রমাণ করেছেন যে তিনি বিপিএলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান।

তার পারফরম্যান্স সিলেট স্ট্রাইকার্সের ফাইনালে পৌঁছানোর পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল।

নাজমুল হোসেন ক্রিকেট ক্যারিয়ারের ভবিষ্যত উজ্জ্বল বলে মনে করা হয়। তিনি একজন প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান এবং তার মধ্যে আরও উন্নতির সম্ভাবনা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *