পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এর সমালোচনা করছেন ভক্তরা চড়া দামে টিকিট বিক্রির জন্য

Home » পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এর সমালোচনা করছেন ভক্তরা চড়া দামে টিকিট বিক্রির জন্য

এশিয়া কাপ ক্রিকেটের প্রস্তুতি চলছে পুরোদমে। ইতিমধ্যেই দলগুলো তাদের পূর্নাঙ্গ স্কোয়াড প্রকাশ করছে। এছাড়াও ম্যাচের তারিখ, স্থান সবকিছুই ঠিকঠাক হয়ে গিয়েছে। অল্পকিছুদিনের ব্যবধানেই শুরু হবে সকলের কাঙ্খিত এশিয়া কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। শনিবার থেকে শুরু হয়ে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এর টিকেট বিক্রয় এর কার্যক্রম।

শুরুর কয়েকদিন সব ঠিক থাকলেও বর্তমানে পিসিবি এর টিকেট বিক্রয় নিয়ে উঠেছে বিভিন্ন প্রশ্ন। চড়া দামে টিকিট বিক্রির জন্য পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এর সমালোচনা করছেন ভক্তরা। ক্রিকেট ভক্তরা বলছেন প্রতি ম্যাচের টিকেটের এমন চড়া দাম সাধারণ মানুষদের খেলা দেখা থেকে বঞ্চিত করছে। পিসিবির টিকেট বিক্রয়ের ক্ষেত্রে দামের বিষয়টি সকল ক্যাটাগরির দর্শকদের ব্যাপারে ভেবে নেওয়া উচিত।

পাকিস্থান ক্রিকেট বোর্ডের বেশি দামে টিকেট বিক্রয়ে সাধারণ মানুষের মন্তব্য এবং তাদের প্রত্যুত্তরের বিস্তারিত থাকছে আজকের পর্বে।

ক্রিকেটে ভক্ত সমর্থনের তাৎপর্য

ক্রিকেটে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের মধ্যে একটি হচ্ছে ভক্তদের সমর্থন। সত্যি বলতে, ভক্তদের ক্রিকেটের প্রতি ভালোবাসা এমন সমর্থনের জন্যই ক্রিকেট আজ বিশ্বে এত জনপ্রিয়।

ক্রিকেট শুধুমাত্র একটি খেলা নয়, এটি কোটি কোটি মানুষের একটি আবেগের নাম।

ক্রিকেটকে ঘিরে তাই দেশে দেশে উন্মাদনার কমতি নেই কোনো। সেই ক্রিকেটেই ভক্তদের সমর্থন একটি অতি মূল্যবান অংশ। ক্রিকেট ভক্তদের দ্বারা প্রদর্শিত আবেগ এবং উদ্দীপনা তুলনাহীন। অসাধারণ গান এবং রঙিন পোশাক থেকে শুরু করে অটল সমর্থন, ক্রিকেট ভক্তরা ম্যাচগুলিতে একটি অনন্য পরিবেশ তৈরি করে।

ক্রিকেট ভক্তদের সংস্কৃতির একটি সংজ্ঞায়িত দিক হচ্ছে তাদের স্টেডিয়ামে নিজেদের দলের জন্য উৎসাহিত চিৎকার এবং উল্লাস।

যেগুলো খেলোয়াড়দের মনোবল বাড়ানোর সাথেই খেলায় দারুণ উত্তেজনা যোগ করে।

ক্রিকেটের মঞ্চে ভক্ত সমর্থকদের এমন উল্লাস এবং সমর্থন এমনকি সবচেয়ে হতাশ দলকেও উন্নীত করতে পারে।

মাঠের বাইরে থেকে তাদের উৎসাহিত বার্তা একজন হতাশ খেলোয়াড়কে ফিরিয়ে দিতে পারে তার কাঙ্খিত ফর্ম।

এমন অনেক হয়েছে ক্রিকেটে। যখন একজন খেলোয়াড় মাঠে সেঞ্চুরি করে, তখন মাত্র বাইরে বসে থাকা ভক্তরা দাড়িয়ে তাকে সম্মান জানায়। এটি যেন ক্রিকেটের একটি অনন্য সংস্কৃতির অংশ।

সমর্থনের পাশাপাশি, ক্রিকেট ভক্তরা তাদের আকর্ষণীয় পোশাকের জন্য পরিচিত।

এছাড়াও দলের পতাকায় ফেস পেইন্ট, জার্সি এবং দলের পতাকা নিয়ে ভক্তরা তাদের প্রিয় দলের প্রতি আনুগত্য এবং সমর্থন প্রদর্শনের জন্য হাজির হয় মাঠে।

কিছু কিছু ক্রিকেট ভক্ত তাদের প্রিয় খেলোয়াড়দের জার্সি এবং তাদের ছবি নিজের শরীরে ট্যাটু করে থাকে।

যেটি যুগ যুগ থেকেই ক্রিকেটের সাথে হয়ে আসছে। আর তাই, ক্রিকেটে ভক্ত সমাজের সমর্থনের গুরুত্ব অনেক।

উচ্চ মূল্যে টিকিট বিক্রিতে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এর সিদ্ধান্ত

১১আগস্ট থেকে শুরু হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড কতৃক এশিয়া কাপের বিভিন্ন ক্যাটাগরির টিকেট বিক্রির কার্যক্রম। পিসিবি কতৃক এশিয়া কাপের ম্যাচগুলোর টিকেট কিনতে পাওয়া যাচ্ছে pcb.bookme.pk ওয়েবসাইটে।

ওয়েবসাইটে প্রতি টিকেটের মূল্য সর্বনিম্ন ৫ ডলার থেকে শুরু করে ২০০ ডলার পর্যন্ত।

তবে সমস্যাটা এখানে নয়। সমস্যা তৈরি হয়েছে সুপার ফোরের কিছু ম্যাচের টিকেট ১০০০০ ডলার পর্যন্ত হওয়ার পর থেকে।

টাকায় যার পরিমাণ আট লক্ষ টাকার অধিক। এশিয়া কাপের টিকেটের এমন চড়া দামে সমালোচনার মুখোমুখি পিসিবি।

তবে উচ্চ মূল্যে টিকিট বিক্রিতে পিসিবি-এর সিদ্ধান্ত এখনো জানা যায়নি।

এই ব্যাপারে পিসিবি এখনও পর্যন্ত তাদের পক্ষ থেকে কোনো বিবৃতি প্রকাশ করেনি।

আর তাই এশিয়া কাপের ম্যাচকে ঘিরে ক্ষোভ জমছে দর্শকদের মাঝে। এমন বেশি দামে টিকেট কিনতে নারাজ ক্রিকেট অনুরাগীরা।

ক্রিকেট ভক্তদের প্রতিক্রিয়া | পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড

এশিয়া কাপে শুরুর ম্যাচগুলোর টিকেট ৫-৫০ ডলারের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও সুপার ফোরের ম্যাচের টিকেটগুলোর দাম সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে চলে গিয়েছে। প্রতিটি টিকেট ডলার থেকে টাকায় কনভার্ট করলে আট লক্ষের বেশি দাম পড়ছে জনপ্রতি একটি টিকেটের মূল্য। যেটি স্বাভাবিকভাবেই অনেক বেশি মূল্য।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এর টিকেট প্রতি এমন দাম নির্ধারণের ফলে ক্রিকেট ভক্তদের নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। অনেকেই অনলাইনে বিভিন্নভাবে এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছে।

এর মধ্যে কিছু ক্রিকেট ভক্তদের এই বিষয়ে করা মন্তব্য নিচে উল্লেখ করা হলো।

“এই টিকিটের দাম কত? কেউ এই দাম দিয়ে শ্রীলঙ্কায় এগুলি কিনতে যাচ্ছে না, খালি স্টেডিয়ামগুলির জন্য শুভকামনা।” একজন ক্রিকেট অনুরাগী মন্তব্য করেছেন।

“এটি কোনো ম্যাচের টিকিট নাকি স্টেডিয়াম বিক্রির টিকেট?” একজন ক্রিকেট অনুরাগী হিন্দিতে লিখেছেন।

“শ্রীলঙ্কার প্রেক্ষাপটে টিকিটের মূল্যের জন্য ২০ ডলার খুব বেশি।

এটি দ্রুত সংশোধন করা উচিত নতুবা স্টেডিয়ামগুলি খালি থাকবে” অন্য একজন ক্রিকেট ভক্ত মন্তব্য করেছেন।

এর থেকে বুঝা যাচ্ছে যে, ক্রিকেট ভক্তরা এশিয়া কাপ টিকেটের এমন উচ্চমূল্যে ম্যাচ উপভোগ করতে আগ্রহী নয়।

তারা প্রত্যেকে ম্যাচের টিকিটের মূল্য কমানোর দাবি রাখছে। তবে এখন পর্যন্ত পিসিবি থেকে এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানানো হয়নি।

ভক্তের উপস্থিতি এবং জড়িত থাকার উপর প্রভাব

এশিয়া কাপ নিঃসন্দেহে এশিয়ার একটু ঐতিহাসিক জনপ্রিয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। স্বাভাবিকভাবেই ভক্তদের মাঝে এশিয়া কাপকে কেন্দ্র করে আগ্রহ রয়েছে প্রচুর। প্রত্যেকেই সরাসরি স্টুডিয়ামে বসে ক্রিকেট জায়েন্টদের ম্যাচ উপভোগ করতে চাইবে।

তবে ম্যাচের টিকেটের এমন অস্বাভাবিক মূল্য ভক্তের উপস্থিতি এবং জড়িত থাকার উপর প্রভাব ফেলবে।

অনেক ক্রিকেট অনুরাগী ইতিমধ্যেই মন্তব্য করেছেন যে এই মূল্য অব্যাহত থাকলে স্টুডিয়াম খালি থাকবে।

যদিও এমনটা কখনো হবেনা, কারণ ক্রিকেটকে ঘিরে ভক্তদের আবেগ টাকার কাছে হার মানবে না।

তবে সাধারণ মানুষের ক্ষেত্রে এটি নেতিবাচক প্রভাব রাখে।

সমালোচনার প্রতি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এর প্রতিক্রিয়া

টিকেট মূল্য নিয়ে হওয়া বিতর্কে এখনও কোনপ্রকার প্রতিক্রিয়া জানায়নি পিসিবি। যদিও টিকেটের এরূপ মূল্যে ক্ষুব্ধ হয়ে আছে ক্রিকেট ভক্তরা। অনেকেই বলেছেন এই মূল্য অব্যাহত থাকলে তারা খেলা দেখতে পারবেন না।

বিশেষ করে যারা সাধারণ মানুষ আছেন তারা এই মূল্যে কোনোভাবেই টিকেট ক্রয় করতে পারছেন না।

ফলে তারা বিভিন্নভাবে অনলাইনে তাদের অভিব্যক্তি প্রকাশ করছে।

পাকিস্থান ক্রিকেট বোর্ডের কেউ এই বিষয়ে কোনো কথা না বললেও ক্রিকেট অনুরাগীদের আশা তারা এই টিকেট মূল্যকে কিছুটা কমিয়ে আনবে।

আর এটা নিশ্চিত হলে অনেকেই সুপার ফোরের ম্যাচগুলোর টিকেট ক্রয় করতে পারবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *