বিপিএল ২০২৪-এ উন্নত প্রযুক্তি এবং শীর্ষস্থানীয় সম্প্রচার

Home » বিপিএল ২০২৪-এ উন্নত প্রযুক্তি এবং শীর্ষস্থানীয় সম্প্রচার

বিপিএল ২০২৪ এবারের আসর শুরু হবে ১৯ জানুয়ারি। যা চলবে এক মাসের বেশি। বরাবরের মতো এবারের আসরটি তিনটি ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে। সাত দলের এই টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১ মার্চ।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ১০ম আসরের সম্প্রচার নিয়ে এবার আশার বাণী উঠেছে। বিসিবির কড়া নজরদারি থাকবে সব ক্ষেত্রেই। তাই এবারের বিপিএলে বিশ্বমানের সম্প্রচার পেতে যাচ্ছে ভক্তরা।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। তবে বিপিএল সম্প্রচারের মান নিয়ে দর্শকদের অভিযোগের শেষ নেই।

আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার, রিভিউর অভাব, ভালো খেলোয়াড়ের অভাবের কারণে বিপিএল অন্যান্য ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের চেয়ে পিছিয়ে আছে।

তবে এবার সেই অভিযোগের অবসান ঘটছে বলে মনে হচ্ছে। কারণ এই অভিযোগের অবসান ঘটাতে বিসিবি এবার আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে সম্প্রচারের মানোন্নয়নে মনোনিবেশ করেছে।

এই লক্ষ্যে বিসিবি এবারের বিপিএল ২০২৪ সম্প্রচারকারীদের জন্য নতুন শর্ত আরোপ করেছে। এই শর্তগুলো হলো:

  • সম্প্রচার সংস্থার আইপিএল, বিগ ব্যাশ বা আইসিসি টুর্নামেন্টের মতো টুর্নামেন্টে অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • সম্প্রচারে ৩৪ থেকে ৩৬টি আধুনিক ক্যামেরা ব্যবহার করা হবে।
  • গ্রাফিক্স এশিয়া কাপ বা বিশ্বকাপ মানের হতে হবে।
  • প্রযোজনা সংস্থাকে সেরা মানের নিশ্চয়তা দিতে হবে এবং এর জন্য বিসিবিকে ২ কোটি টাকা দিতে হবে।
  • যেকোনো সময় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের চুক্তি বাতিল করতে পারে বিসিবি।

এই শর্তগুলোর ফলে এবারের বিপিএলের সম্প্রচারের মান পূর্বের তুলনায় অনেক উন্নত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

বিস্তারিত শর্তাবলী

  • ক্যামেরা: সম্প্রচারে ৩৪ থেকে ৩৬টি আধুনিক ক্যামেরা ব্যবহার করা হবে। এর মধ্যে ১৮টি অপারেটর বা সংকেতের হাতে থাকবে। বাকি ১৬টি স্বয়ংক্রিয় হবে। এতে মাঠের বিভিন্ন দৃশ্য আরও ভালোভাবে দর্শকদের কাছে তুলে ধরা সম্ভব হবে।
  • গ্রাফিক্স: গ্রাফিক্স এশিয়া কাপ বা বিশ্বকাপ মানের হতে হবে। এতে পাহাড়ি প্লটার, টার্গেট এয়ার, ওয়াপস এবং ড্রোনের উপস্থিতি অন্তর্ভুক্ত থাকবে। ACC বা ICC-এর মতো আন্তর্জাতিক মানের ইভেন্টের মতো গ্রাফিক্সের গুণমান থাকতে হবে।
  • অডিও-ভিডিও মিক্সার: অত্যাধুনিক অডিও মিক্সার বা ভিডিও মিক্সার থাকতে হবে।
  • স্টুডিও: অত্যাধুনিক স্টুডিওতে থাকবে আধুনিক আলো, প্রতিফলিত চেয়ার, পিজিএম মনিটর।
  • প্রকৌশলী ক্রু: অভিজ্ঞ প্রযোজক, ক্যামেরাম্যান এবং সম্পাদকদের নিয়ে থাকবে যার দশ বছরের লাইভ স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট অভিজ্ঞতা রয়েছে।
  • থার্ড আম্পায়ার ও ধারাভাষ্য: থার্ড আম্পায়ার ও ধারাভাষ্যে আধুনিকতার ছোঁয়া থাকবে।
  • মাঠ: মাঠে রিং বেল এবং এলইডি স্টাম্প থাকবে।

এই শর্তগুলোর মাধ্যমে বিসিবি আশা করছে যে এবারের বিপিএলের সম্প্রচারের মান বিশ্বমানের হবে। এতে দর্শকরা খেলার প্রতি আরও বেশি আগ্রহী হবেন এবং বিপিএলের জনপ্রিয়তাও বৃদ্ধি পাবে।

বিপিএল ২০২৪  সহ ডিসেম্বর ২০২৪ পর্যন্ত বাংলাদেশের হোম সিরিজ সম্প্রচার করবে টি স্পোর্টস

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ঘোষণা করেছে যে টি স্পোর্টস-এর নেতৃত্বাধীন টি স্পোর্টস কনসোর্টিয়াম ২০২৪ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশের সমস্ত হোম সিরিজ এবং বিপিএলের সম্প্রচার স্বত্ব অর্জন করেছে।

এই চুক্তির ফলে, টি স্পোর্টস এবং এর অ্যাপ ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য বাংলাদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেট ইভেন্টগুলির সর্বোত্তম সম্প্রচার নিশ্চিত করবে।

বিপিএল ২০২৪ সম্প্রচার স্বত্ব অর্জনের মাধ্যমে, টি স্পোর্টস বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিকেট লিগের সম্প্রচার অধিকারের সাথে যুক্ত হবে।

বিপিএল প্রতি বছর বাংলাদেশে লক্ষ লক্ষ দর্শকদের কাছে পৌঁছায় এবং এটি ক্রিকেটের সবচেয়ে আকর্ষণীয় এবং উত্তেজনাপূর্ণ টুর্নামেন্টগুলির মধ্যে একটি।

বাংলাদেশের হোম সিরিজের সম্প্রচার স্বত্ব অর্জনের মাধ্যমে, টি স্পোর্টস বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচগুলি সম্প্রচার করবে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দল বিশ্বের অন্যতম প্রতিযোগিতামূলক দল এবং তারা প্রতি বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ খেলে।

বিপিএল ২০২৪এর  দশম আসর

বিপিএল ২০২৪এর  দশম আসরটি ২০২৪ সালের প্রথম দিকে শুরু হবে এবং ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহ পর্যন্ত চলবে।

এই আসরে সাতটি দল অংশগ্রহণ করবে। টি স্পোর্টসের সিইও ইশতিয়াক সাদেক বলেছেন, “দর্শকের চাহিদা বিবেচনা করে আমরা বিপিএল প্রদর্শনের জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

আমাদের এই সুযোগটি অর্পণ করার জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রতি আমাদের আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।

আমাদের লক্ষ্য হল ঘনিষ্ঠভাবে সহযোগিতা করা বিসিবি শুধু বিপিএল সম্প্রচার করবে না, টুর্নামেন্টের ব্র্যান্ড ভ্যালুও বাড়াবে।”

বিপিএল ২০২৪এর  পর বাংলাদেশের হোম সিরিজ

বিপিএল ২০২৪এর পর টাইগাররা ২০২৪ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত চারটি হোম সিরিজ খেলবে। এই সিরিজগুলো হল:

  • ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ – নিউজিল্যান্ড
  • ২টি টেস্ট, ৩টি ওয়ানডে ও ৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ – শ্রীলঙ্কা
  • ২টি টেস্ট ও ৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ – জিম্বাবুয়ে
  • ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ – দক্ষিণ আফ্রিকা

প্রতিটি ম্যাচ একচেটিয়াভাবে টি স্পোর্টসে সম্প্রচার করা হবে।

বিপিএল ২০২৪এর পর টি স্পোর্টসের অন্যান্য অর্জন

টি স্পোর্টস ইতিমধ্যেই ভারতীয় ক্রিকেট দলের সমস্ত হোম সিরিজের সম্প্রচার স্বত্ব কিনে নিয়েছে।

আগামী সেপ্টেম্বরে, বাংলাদেশ দল ২টি টেস্ট ও ৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে ভারতে যাবে। এই ম্যাচগুলোও টি স্পোর্টস নেটওয়ার্ক সরাসরি সম্প্রচার করবে।

টি স্পোর্টসের এই অর্জনগুলো বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে একটি নতুন অধ্যায়ের সূচনা করেছে।

এই চুক্তিগুলোর ফলে, বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা তাদের পছন্দের খেলাটি সর্বোচ্চ মানের সম্প্রচারে উপভোগ করতে পারবেন।

বিপিএল ২০২৪ সম্প্রচারের মানোন্নয়নের প্রভাব

বিসিবির এই উদ্যোগের ফলে এবারের বিপিএল ২০২৪এর  সম্প্রচারের মান পূর্বের তুলনায় অনেক উন্নত হবে।

বিশেষ করে, সম্প্রচারের মানোন্নয়নের ফলে বিপিএল ২০২৪এর দর্শকসংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

কারণ, সম্প্রচারের মান ভালো হলে দর্শকরা খেলা দেখার জন্য আগ্রহী হবেন। এছাড়াও, সম্প্রচারের মানোন্নয়নের ফলে বিপিএলের আন্তর্জাতিক বাজার সম্প্রসারিত হবে।

কারণ, সম্প্রচারের মান ভালো হলে বিদেশী দর্শকরাও বিপিএল উপভোগ করতে পারবেন।

বিসিবির এই উদ্যোগ ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য একটি সুখবর। এই উদ্যোগের ফলে বিপিএল আরও বেশি আকর্ষণীয় ও দর্শকপ্রিয় হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *