রশিদ খান আফগান ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য বিশ্বকাপের পুরো বেতন দান করবেন

Home » রশিদ খান আফগান ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য বিশ্বকাপের পুরো বেতন দান করবেন

রশিদ খান তার বিশ্বকাপের পুরো বেতন আফগান ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য দান করার ঘোষণা দিয়েছেন। সম্প্রতি রশিদ খানের এমন কাজ রীতিমত অবাক করেছে সবাইকে এবং আফগান ভক্ত সমাজের প্রশংসার জোয়াড়ে ভাসছেন তিনি।

আইসিসি ওডিআই বিশ্বকাপ ক্রিকেটের তেরতম আসরের খেলা ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। সর্বমোট দশটি দলের অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে এই টুর্নামেন্ট। টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া দলগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে আফগানিস্থান। যদিও আফগানিস্তানের বিশ্বকাপ শুরুটা একদমই আশানুরূপ হয়নি।

বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই বাংলাদেশের কাছে হারে আফগানিস্থান। এরপর দ্বিতীয় ম্যাচে আজ ভারতের মুখোমুখি হয়েছিল রশিদ খানের দল। কিন্তু সেখানেও হারতে হয় তাদের। বিশ্বকাপ শুরুটা আশানরুপ করতে পারেনি আফগানিস্থান। তবে দলের অন্যতম খেলোয়াড় রশিদ খান টুইটারে এক টুইট করে রীতিমত আশানুরূপ এক কাজ করেছে।

সম্প্রতি আফগানিস্থানে হওয়া এক ভয়ানক ভূমিকম্পে অসংখ্য মানুষ মারা যায়, এছাড়াও অসংখ্য মানুষ ক্ষতির সম্মুখীন হন ভূমিকম্পের কারণে। আর তাই আফগানিস্থানের মানুষের দুঃখকে কিছুটা ভাগাভাগি করে নেন রশিদ খান। টুইটারে টুইট করে জানিয়ে দেন বিশ্বকাপে তার অর্জিত সকল অর্থ তহবিল হিসেবে জমা করবেন ভূমিকম্পের ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া মানুষদের জন্য।

রশিদ খান দলের একজন অন্যতম খেলোয়াড়। একইসাথে দলের বাইরেও দেশের মানুষদের জন্য তার এই দান ভক্তদের মাঝে তার এক নতুন পরিচিতি তৈরি করেছে। টুইটারে তার এই ঘোষণার পর থেকেই ইতিবাচক মন্তব্য পাচ্ছেন রশিদ খান। তিনি যেন প্রমাণ করলেন একজন ক্রিকেটারের দায়িত্বের পরিসর কতটুকু হওয়া উচিত।

আফগানিস্থানের অন্যতম একজন খেলোয়াড় রশিদ খান। চলুন সংক্ষেপে রশিদ খানের ক্রিকেট প্রোফাইল সম্পর্কে কিছুটা জেনে নেওয়া যাক।

রশিদ খান: ক্রিকেটার প্রোফাইল

রশিদ খান বিশ্বের অন্যতম সেরা স্পিনারদের মধ্যে একজন। তিনি কেবল একজন ভালো বোলারই নন বরং তিনি বর্তমানে একজন ব্যাটসম্যান। সময়ের সাথে সাথে তার ব্যাটিং যাদু দেখছে বিশ্ব ক্রিকেট।জাতীয় দলে রশিদ খানের একটি বড় পরিচয় হচ্ছে তিনি টি টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রশিদ খানের অভিজ্ঞতা নেহাত কম নয়।

ওডিআই ক্রিকেটে রশিদ খান এই পর্যন্ত ম্যাচ খেলেছে ৯৬টি, যেখানে তিনি ১২৩৬ রান সংগ্রহ করেছেন সর্বমোট।

এছাড়াও বল হাতে রশিদ শিকার করেছেন ১৭৪টি উইকেট।

টি টোয়েন্টি ফরমেটে রশিদ খেলেছেন ৮২টি ম্যাচ যেখানে তিনি রান সংগ্রহ করেন ৩৭০ এবং বল হাতে উইকেট শিকার করেন ১৩০টি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছাড়াও রশিদ খেলেন ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আইপিএলে রশিদ খান খেলছেন গুজরাট টাইটানস এর হয়ে। সবশেষ আইপিএলে তার দল খেলেছে ফাইনাল।

যদিও শেষ হাসি ফুটেছিল চেন্নাই সুপার কিংসের, রানারআপ হয় গুজরাট টাইটানস দল।

এছাড়াও রশিদ আরো বিভিন্ন ফ্রাঞ্চাইজির লিগে খেলে থাকেন।

আফগান ভূমিকম্প আপডেট

সম্প্রতি আফগানিস্থানে ৬.৩ মাত্রার একটি বড় ভূমিকম্প দেখা যায়। উক্ত ভূমিকম্পে বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর খবরে পাশাপাশি অনেক ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

গত ৭ অক্টোবর তারিখে হটাৎ করেই যেন এক বড় মাত্রার ভূমিকম্পের আবির্ভাব হয়েছিল, যেটি ছিল ৬.৩ মাত্রার।

উক্ত ভূমিকম্পে হতাহতের সংখ্যা আড়াই হাজারের অধিক বলে জানা গিয়েছে।

বিভিন্ন বড় ভবন ধ্বসের ঘটনা জানা গিয়েছে। এসব ভবন ধ্বসে পড়ে মানুষের মৃত্যুর খবরও শোনা গিয়েছে।

ইতিমধ্যেই উদ্ধার কার্যক্রম শুরু হয়ে গিয়েছে আফগানিস্থানে।

জানা গিয়ে আফগানিস্থানে হওয়া আকস্মিক এই ভূমিকম্পে আহত হয়েছেন প্রায় দশ হাজার মানুষ এবং প্রায় আড়াই হাজারের মতো মানুষ নিহত হয়েছে এই ঘটনায়।

তাদের পাশেই দাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন আফগানিস্থান ক্রিকেটের এক নক্ষত্র রশিদ খান।

রশিদ খান এর জনহিতকর অঙ্গভঙ্গি

ওডিআই বিশ্বকাপ খেলতে বিশ্বকাপের আগেই ভারতে পাড়ি জমিয়েছিলেন আফগানিস্থান ক্রিকেটের রাজপুত্র রশিদ খান।

কিন্তু দেশ থেকে দূরে গিয়েই দেশের বিপর্যয়ের খবর শুনতে হয় তাকে।

আকস্মিক এক ভূমিকম্পে যখন কেপে উঠে আফগানিস্থানের একটু শহর, তখন হতাহতের খবর পেয়ে চুপ থাকতে পারেননি রশিদ খান।

আড়াই হাজার মৃত্যুর খবরের সাথে দশ হাজার মানুষের আহত হওয়ার খবর শুনে রীতিমত বড় একটি কাজ করেন তিনি।

বিশ্বকাপ খেলে রশিদ খান যত টাকা আয় করবেন সেসব তিনি দান করে দেবেন ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের মাঝে।

তার এমন ঘোষণা রীতিমত তাকে ভক্তদের কাছে আরো প্রশংসার বস্তু করে তুলেছে।

ক্রিকেটে ক্রীড়াবিদ পরোপকারীতার তাৎপর্য

ক্রিকেটে ক্রীড়াবিদদের পরোপকারীতার বিশেষ একটি তাৎপর্য রয়েছে। ক্রিকেটাররা একটি দেশের সম্পদ হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে।

আর তাই দেশের সম্পদের দেশের মানুষের প্রতি একটি দায়িত্ব পালনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

যদিও এই বাধ্যবাধকতার কোন লিখিত বিজ্ঞপ্তি নেই।

তবে বিভিন্ন সময়ে দেশের প্রয়োজনে ক্রিকেটারদের এগিয়ে আসতে দেখা যায়।

ক্রিকেটারদের পরোপকারীতার এমন উদাহরণ এর আগে অনেকে রেখে গেছেন।

যেমন করোনা ভাইরাস মহামারীর সময় ভারতের ক্রিকেট বিরাট কোহলি এবং তার স্ত্রী অনুশকা শর্মা মিলে একটি ফান্ড গঠন করে।

যেখানে তারা নিজেরা প্রথমবারের মতো দুই কোটি টাকা ডোনেট করেছিল।

এরপর তারা প্রায় আঠারো হাজারো লোকের ডোনেশন জোগাড় করে সেসব করোনা ভাইরাসে দুর্গত মানুষদের পিছনে খরচ করেন।

একইভাবে, বাংলাদেশের মাশরাফি, সাকিবদের অসাধারণ পরোপকারীতার বিষয়টি দেখা যায় করোনা মহামারীর সময়ে।

এসব উদাহরণ থেকে বোঝা যায়, একজন ক্রিকেটারের কেবল খেলার দিকে মনোনিবেশ করলেই যথার্থ হয়না, বরং দেশের মানুষদের কথাও তার বাবা আবশ্যক।

ভক্তদের প্রতিক্রিয়া এবং সমর্থন

ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন আফগানিস্থানের চমক রশিদ খান। যেখানে তিনি বিশ্বকাপের সকল ফি ডোনেশন হিসেবে ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের মাঝে দিবেন বলে ঘোষণা করেছেন।

রশিদ খান তার পারফরমেন্সের জন্য বরাবরেই ভক্তদের মন জুড়ে আছেন।

তবে এবার টুইটারে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে যেন নতুনভাবে নিজের এক পরিচয় তৈরি করেছেন তিনি।

তার এমন কর্মকাণ্ডে ভক্তদের মাঝে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা যায়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রীতিমত ভাইরাল হতে গেছে রশিদ খানের এমন কান্ড।

আর তাতেই প্রশংসায় ভাসছেন রশিদ খান। তার এমন কর্মকাণ্ড থেকে ভবিষ্যৎ ক্রিকেট অনেক কিছুই শিখেছে।

এভাবে অসময়ে দেশের বিপদে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়াটা বড় মনের পরিচয়, যেটা রশিদ খানের মাঝে লক্ষ করা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *