সিপিএল ২০২৩ এর ভবিষ্যদ্বাণী – ফাইনাল ম্যাচে খেলবে যে দুই দল

Home » সিপিএল ২০২৩ এর ভবিষ্যদ্বাণী – ফাইনাল ম্যাচে খেলবে যে দুই দল

ওয়েস্ট ইন্ডিজের অন্যতম ঘরোয়া ক্রিকেট টুর্নামেন্ট সিপিএল ২০২৩ এর খেলা প্রায় অন্তিম পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। ইতিমধ্যে পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে অবস্থান করা চারটি দল তাদের প্লে অফের খেলা নিশ্চিত করে ফেলেছে। আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর তারিখে এই ঘরোয়া ক্রিকেট লিগের চূড়ান্ত ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট লিগের চূড়ান্ত ম্যাচে কোন দুই দল মুখোমুখি হবে এই নিয়ে অসংখ্য পরিসংখ্যান উঠে এসেছে অনেক প্রতিবেদনে। সিপিএল টুর্নামেন্টের পারফরম্যান্স বিবেচনায় কয়েকটি দলকে ফাইনালের ফেভারিট হিসেবে ধরা হয়েছিল। ইতিমধ্যে সেসব দলের মধ্য থেকেই প্লে অফ পর্যন্ত খেলার সুযোগ পেয়েছে দলগুলো।

আজকের এই নিবন্ধে আমরা বর্তমান এবং বিগত বেশ কিছু ফ্যাক্টর বিবেচনা করে সিপিএল ২০২৩ ফাইনাল ম্যাচ খেলা দুই দলের ভবিষ্যদ্বাণী করার চেষ্টা করবো।

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল) ওভারভিউ | সিপিএল ২০২৩

ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট লিগ হচ্ছে একটি ঘরোয়া ক্রিকেট টুর্নামেন্ট যেটি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড কতৃক ওয়েস্ট ইন্ডিজে বার্ষিক টি টোয়েন্টি ফরমেটে অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। এটি একটি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ যেখানে ওয়েস্ট ইন্ডিজের খেলোয়াড়দের বাইরেও অনেক বিদেশী খেলোয়াড় টুর্নামেন্টে অংশ নিয়ে থাকে।

২০২৩ সালে সিপিএল টুর্নামেন্ট শুরু হয়েছিল গত ১৬ আগস্ট তারিখ থেকে। ইতিমধ্যে টুর্নামেন্টটির অন্তিম পর্যায়ের খেলা শুরু হতে যাচ্ছে। এটি ছিল ক্যারিবিয়ান আসরের এগারতম মৌসুমের খেলা, যেখানে ছয়টি দল অংশ নিয়েছে।

সিপিএল ২০২৩ অংশগ্রহণকারী দলগুলির ওভারভিউ

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল) ২০২৩ টুর্নামেন্টে সর্বমোট ছয়টি দল অংশ নিয়েছে। এবারের সিপিএলে অংশ নেওয়া উক্ত দলগুলো হচ্ছে বার্বাডোজ রয়্যালস, গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়র্স, জ্যামাইকা তালাওয়াহস, সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস, সেন্ট লুসিয়া কিংস এবং ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আসরে এই ছয়টি দল ইতিমধ্যেই দশটি করে ম্যাচ খেলেছে।

পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে অবস্থান করছে গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়র্স, যারা আটটি ম্যাচ জিতেছে এবং একটি ম্যাচ হেরেছে কেবল।

দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স, যারা ছয়টি ম্যাচ জিতে ১৩ পয়েন্ট অর্জন করেছে।

তৃতীয় অবস্থানে আছে সেন্ট লুসিয়া কিংস যারা চারটি ম্যাচে জয় পেয়েছে।

চতুর্থ অবস্থানে থাকা জ্যামাইকা তালাওয়াহস দলটিও চার ম্যাচে জয় পেয়েছে।

সিপিএল ২০২৩ পয়েন্ট টেবিলের সর্বশেষ অবস্থানে আছে সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস।

সম্পূর্ণ মৌসুমে তাদের জয় কেবল একটি ম্যাচে।

ছয়টি দলের মধ্যে শীর্ষে থাকা চারটি দল সিপিএল প্লে অফ পর্যন্ত কোয়ালিফাই করেছে।

বাদ পড়েছে বার্বাডোজ রয়্যালস এবং সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস।

সিপিএল ২০২৩ এর ভবিষ্যৎবাণী

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আসরের বেশিরভাগ ম্যাচ মাঠে গড়িয়েছে। ছয়টি দলের মধ্যে চারটি দল ইতিমধ্যে প্লে অফ পর্যন্ত কোয়ালিফাই করেছে।

এই চার দলের মধ্যে যেকোনো দুইটি দল প্লে অফ থেকে ফাইনাল পর্যন্ত খেলার সুযোগ পাবে।

নিচে বিশ্লেষণপূর্বক ফাইনালে খেলা দুটি দলের ভবিষ্যৎবাণী করা হলো।

টিম ১: গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়র্স

এখন পর্যন্ত এবারের ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আসরের সবচেয়ে সফল দল গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়র্স। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ ২০২৩ মৌসুমে আমাজন ওয়ারিয়র্স দল এখন পর্যন্ত দশটি ম্যাচ খেলেছে, যেখানে তারা আটটি ম্যাচে জয় পেয়েছে। একটি ম্যাচ বৃষ্টির কারণে বাধাগ্রস্ত হয় এবং কেবল একটি ম্যাচ তারা হেরেছে এই মৌসুমে।

দুর্দান্ত ফর্ম এবং ধারাবাহিক পারফরমেন্স এর কারণে সরাসরি কোয়ালিফায়ার পর্যন্ত পৌঁছে গিয়েছে আমাজন ওয়ারিয়র্স।

আমাজন ওয়ারিয়র্স দলে দেখার মত অসংখ্য খেলোয়াড় রয়েছে এবং তারা যথেষ্ট ভালো ফর্মে আছে।

এমন পাঁচ খেলোয়াড়দের মধ্যে প্রথমেই রয়েছে শাই হোপ, যিনি এবারের সিপিএল আসরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক।

দ্বিতীয় অবস্থানে আছে অধিনায়ক ইমরান তাহির। দুর্দান্ত লিগ স্পিন জাদুতে যিনি বল হাতে অনন্য।

তৃতীয় খেলোয়াড়টি হচ্ছে কেভলন অ্যান্ডারসন এবং চতুর্থ অবস্থানে হেটমায়ার। দলের পঞ্চম নজরে থাকা খেলোয়াড় হচ্ছেন বিটন।

সিপিএল ২০২৩ আসরে জয়ে দুর্দান্ত ধারাবাহিক থাকলেও আমাজন ওয়ারিয়র্স এখনও কোনো শিরোপা জিততে পারেনি।

আর তাই এই মৌসুমটি নিজেদের করে নিতে লড়াই করছে তারা।

টিম ২: ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আসরে পয়েন্ট তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা দল ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স। ক্যারিবিয়ান লিগের সর্বোচ্চ শিরোপা জয়ের মালিক ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স, আর তাই সিপিএল টুর্নামেন্টে সবচেয়ে সফল দল বলেই বিবেচিত হয় তারা। ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স চারটি শিরোপা জিতেছে এখন পর্যন্ত।

দুর্দান্ত জয় ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে ফাইনালে দেখা যেতে পারে ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স দলকে।

তাদের দলের নজরে থাকা ৫ খেলোয়াড়গুলো হচ্ছে কাইরন পোলার্ড, মার্টিন গাপটিল, ওয়ালটন, অ্যালিনে এবং মার্ক দেয়াল।

অধিনায়ক কাইরন পোলার্ডের নেতৃত্বে জয়ের ধারাবাহিকতায় রয়েছে ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স।

সিপিএল আসরে এখন পর্যন্ত ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স দশ ম্যাচ খেলেছে, যেখানে তারা ছয় ম্যাচে জয় পেয়েছে এবং তিনটি ম্যাচ হেরেছে।

উল্লেখ্য একটি ম্যাচ বৃষ্টির কারণে বাধাগ্রস্ত হয়েছিল।

ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স তাদের ফর্ম বিবেচনায় এগিয়ে আছে।

প্রথম কোয়ালিফায়ার জিতলেই তারা ফাইনালে পৌঁছে যাবে। এটি তাদের পঞ্চম শিরোপা হতে পারে।

হেড টু হেড: গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়র্স বনাম ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্স

পরিসংখ্যানগত দিক থেকে দুটি দল একে অপরের চেয়ে আহামরি পিছিয়ে নেই। আমাজন ওয়ারিয়র্স এবং নাইট রাইডার্স এই পর্যন্ত সাতাশবার একে অপরের মুখোমুখি হয়। যেখানে আমাজন ওয়ারিয়র্স ম্যাচ জিতেছে চৌদ্দটি এবং নাইট রাইডার্স ম্যাচ জিতেছে তেরটি।

অর্থাৎ জয়ের পরিসংখ্যানে কেবল একটি ম্যাচ পিছিয়ে রয়েছে নাইট রাইডার্স।

তবে শিরোপা জয়ের রেকর্ডে দুর্দান্ত নাইট রাইডার্স। তারা চারটি ক্যারিবিয়ান শিরোপা জয়ের মালিক।

অন্যদিকে ২০২৩ ক্যারিবিয়ান আসরের সবচেয়ে বেশি ম্যাচ জেতা আমাজন ওয়ারিয়র্স এখনও একটিও শিরোপা ঘরে তুলতে পারেনি।

আর তাই সামর্থ্য বিবেচনায় দুটি দল দুর্দান্ত।

বিবেচনা করার জন্য বাহ্যিক কারণগুলো

বিগত পরিসংখ্যান এবং বর্তমান জয়ের ধারাবাহিকতা বিশ্লেষণ করে আমরা ভবিষ্যৎবাণী করেছি যে আমাজন ওয়ারিয়র্স এবং নাইট রাইডার্স – এই দুটি দল ক্যারিবিয়ান লিগ ২০২৩ পর্বে ফাইনালে খেলার যোগ্যতা রাখে। তবে ক্রিকেট একটি মজার গেম, এখানে যেকোনো কিছুই ঘটতে পারে।

তবে বিগত পারফর্মেন্স ছাড়াও বিবেচনা করার বাহ্যিক একটি কারণ হচ্ছে সাম্প্রতিক ফর্ম।

এদিক থেকে আমাজন ওয়ারিয়র্স এবং নাইট রাইডার্স সবচেয়ে এগিয়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *