সেমিফাইনালের সমীকরণ বিশ্বকাপে ১০টি দলের জন্য

Home » সেমিফাইনালের সমীকরণ বিশ্বকাপে ১০টি দলের জন্য

বিশ্বকাপে ১০টি দলের জন্য সেমিফাইনালের সমীকরণ বা সম্ভাব্য দলগুলোর সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা থাকছে আজকের নিবন্ধে।

আইসিসি ওডিআই বিশ্বকাপ ২০২৩ টুর্নামেন্টের খেলা ইতিমধ্যেই অন্তিম পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। বিশ্বকাপে প্রতিটি দল সর্বমোট নয়টি ম্যাচ করে খেলবে, যেটি রাউন্ড রবিন ফরমেট অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। ইতিমধ্যে প্রতিটি দল প্রায় ছয়-সাতটি করে ম্যাচ খেলেছে, যেখানে ইতিমধ্যে কয়েকটি দলের সেমিফাইনাল খেলার সুযোগ হাতছাড়া হয়ে গিয়েছে।

তবে চলমান বিশ্বকাপে শীর্ষ সাত দল সরাসরি খেলার সুযোগ পাবে ২০২৫ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি, যেটি অনুষ্ঠিত হবে পাকিস্থানে। আর তাই বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল খেলার সুযোগ না পেলেও দলগুলো অবশ্যই তাদের বিশ্বকাপ মিশন শীর্ষ সাত অবস্থানের মধ্যে থেকে শেষ করতে চাইবে। নিচে বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া দশটি দলের বর্তমান পরিস্থিতি এবং সেমিফাইনালের সমীকরণ বিশ্লেষণ করা হলো।

বিশ্বকাপে ১০টি দলের জন্য সেমিফাইনালের সমীকরণ

১. সাউথ আফ্রিকা

বর্তমানে পয়েন্ট তালিকায় সর্বোচ্চ অবস্থানে থাকা দল সাউথ আফ্রিকা। সর্বমোট সাতটি ম্যাচ খেলেছে সাউথ আফ্রিকা, যেখানে তারা ছয়টি ম্যাচে জয় পেয়েছে। এতে ১২ পয়েন্ট এবং +২.২৯০ নেট রানরেটের সাথে দুর্দান্ত অবস্থানে আছে সাউথ আফ্রিকা। বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে এক পা দিয়ে রেখেছে সাউথ আফ্রিকা। দুটি ম্যাচের মধ্যে কেবল একটি ম্যাচে জয় নিশ্চিত করতে পারলেই তাদের সেমিফাইনাল নিশ্চিত। এছাড়াও সমীকরণের উপর নির্ভর করে ছয়টি ম্যাচ তাদের সেমিফাইনাল নিশ্চিত করার জন্য যথেষ্ট হতে পারে। এটি পয়েন্ট টেবিলের ফলাফলের উপর নির্ভর করে থাকছে।

২.ভারত

আইসিসি বিশ্বকাপ ২০২৩ সেমিফাইনালের সমীকরণ এর সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে ভারত। ভারত ইতিমধ্যেই তাদের এক পা সেমিফাইনালের ঘরে রেখেছে। কেবল একটি ম্যাচে জয় পেলেই ভারতের সেমিফাইনাল নিশ্চিত।

এখন পর্যন্ত ভারত সর্বমোট ছয়টি ম্যাচ খেলেছে, যেখানে প্রতিটি ম্যাচেই জয় পেয়েছে ভারত।

পয়েন্ট টেবিলে তাদের পয়েন্ট সংখ্যা ১২। এছাড়াও দুর্দান্ত রান রেট নিয়ে পয়েন্ট তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে অবস্থান করা দল ভারত।

আর তাই ভারতের সেমিফাইনাল উঠার সমীকরণ অনেকটাই সহজ। তিন ম্যাচের একটিতে জয় পেলেই তারা সেটি নিশ্চিত করবে।

৩. অস্ট্রেলিয়া

বিশ্বকাপের শুরুটা আশানুরূপ না হলেও দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে অস্ট্রেলিয়া। পরপর জয়ের দেখা মিলছে তাদের। অস্ট্রেলিয়া সর্বমোট ছয়টি ম্যাচ খেলেছে, যেখানে তারা জয় পেয়েছে চারটি ম্যাচে। এতে ৮ পয়েন্ট এবং +০.৯৭০ নেট রানরেটের সাথে পয়েন্ট তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে তারা।

বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে উঠার সমীকরণ সহজ হতে পারে অস্ট্রেলিয়ার জন্য।

কেবল দুটি ম্যাচে জয় নিশ্চিত করলেই তাদের সেমিফাইনাল নিশ্চিত হবে। তারা সেটি নিশ্চিত করার দিকেই এগিয়ে রয়েছে।

৪. নিউজিল্যান্ড

বিশ্বকাপের শুরুটা ভালো ছিল নিউজিল্যান্ডের। তবে পরপর হার বরণ করে নেওয়ার ফলে তাদের সেমিফাইনালের সমীকরণ কিছুটা জটিল হয়ে পড়েছে। বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত সর্বমোট সাত ম্যাচ খেলেছে নিউজিল্যান্ড, যেখানে তারা চারটি ম্যাচে জয় পেয়েছে। অর্থাৎ তাদের পয়েন্ট সংখ্যা ৮। বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল নিশ্চিত করার জন্য বাকি দুই ম্যাচের দুটিতেই জয় নিশ্চিত করতে হবে নিউজিল্যান্ডের। দুটি জয় নিশ্চিত করলেই সেমিফাইনালের টিকেট পেয়ে যাবে নিউজিল্যান্ড।

৫. পাকিস্থান

পাকিস্থান পয়েন্ট তালিকায় পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে। পাকিস্থানের সেমিফাইনাল খেলার সমীকরণটা অনেকটাই জটিল।

পাকিস্থান সর্বমোট সাতটি ম্যাচ খেলেছে এবং তিনটি ম্যাচে জয় পেয়েছে। তাদের পয়েন্ট সংখ্যা ৬ এবং নেট রানরেট ০.০২৪।

অর্থাৎ সেমিফাইনালে উঠতে হলে পাকিস্তানকে তাদের শেষ দুটি ম্যাচে অবশ্যই ভালো ব্যবধানে জয় পেতে হবে।

একইসাথে তাকিয়ে থাকতে হবে নিউজিল্যান্ডের দিকে। নিউজিল্যান্ডের পয়েন্ট সংখ্যা ৮। আর তাই দুটি ম্যাচের দুটিতে জয় পেলেই তাদের সেমিফাইনাল নিশ্চিত। নিউজিল্যান্ড তাদের দুটি ম্যাচের একটি খেলবে পাকিস্থানের সাথে। তারা দুটি ম্যাচ হেরে গেলে তাদের পয়েন্ট সংখ্যা হবে ৮, অন্যদিকে পাকিস্থান যদি তাদের অপর দুটি ম্যাচে জয় নিশ্চিত করে তাদের পয়েন্ট সংখ্যা হবে ১০।

অর্থাৎ পাকিস্থানের জন্য শেষ দুটি ম্যাচ হবে “ডু অর ডাই” ম্যাচ।

৬. আফগানিস্থান

পয়েন্ট তালিকায় ষষ্ট অবস্থানে থাকা দল আফগানিস্তান। আফগানিস্থান সর্বমোট ছয়টি ম্যাচ খেলে জয় পেয়েছে তিনটি ম্যাচে।

তাদের পয়েন্ট সংখ্যা ৬ এবং নেট রানরেট -০.৭১৮। আফগানিস্থানের সেমিফাইনালে উঠার সম্ভবনা এখনও আছে।

তবে জটিল সমীকরণের মধ্য দিয়ে যেতে হবে তাদের।

সেমিফাইনালে উঠার জন্য তাদের অবশ্যই শেষ তিনটি ম্যাচে জয় নিশ্চিত করতে হবে।

একইসাথে তাকিয়ে থাকতে হবে নিউজিল্যান্ড এবং পাকিস্থানের হারের দিকে। তিনটি ম্যাচ জিতলে আফগানিস্থানের পয়েন্ট সংখ্যা হবে ১২। যেহেতু নেট রান রেটের হিসেবে অনেকটাই পিছিয়ে আফগানিস্থান, সেহেতু অবশ্যই তাদের শেষ ম্যাচগুলোতে জয় নিশ্চিত করতে হবে।

নাহলে সেমিফাইনালের টিকিট হাতছাড়া হবে আফগানিস্থানের।

৭. শ্রীলঙ্কা (সেমিফাইনালের সমীকরণ)

বিশ্বকাপে পয়েন্ট তালিকায় সপ্তম অবস্থানে থাকা দল শ্রীলঙ্কা। শ্রীলঙ্কা সর্বমোট ছয়টি ম্যাচ খেলেছে এবং জয় পেয়েছে কেবল দুটি ম্যাচে। শ্রীলঙ্কার সেমিফাইনালে উঠার সম্ভবনা অনেকটাই কম কিন্তু অসম্ভব নয়।

সেমিফাইনালে উঠতে হলে নাকি তিনটি ম্যাচে জয় পাওয়ার সাথে সাথে তাদের তাকিয়ে থাকতে হবে পয়েন্ট তালিকায়।

তবে অনেকটাই জটিল সমীকরণ এটি।

তবে ২০২৫ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সুযোগ পাওয়ার জন্য শ্রীলঙ্কা অবশ্যই একটি ভালো অবস্থানে আছে।

৮. নেদারল্যান্ডস

পয়েন্ট তালিকায় অষ্টম অবস্থানে থাকা দল নেদারল্যান্ডস। নেদারল্যান্ডসের সেমিফাইনালে খেলার সুযোগ নেই।

সর্বমোট ছয়টি ম্যাচ খেলে তারা জয় পেয়েছে কেবল দুটি ম্যাচে। এখনও তিনটি ম্যাচ খেলা বাকি রয়েছে তাদের।

পয়েন্ট তালিকায় এক ধাপ উন্নতি পেলেই শীর্ষ সাতে থেকে বিশ্বকাপ শেষ করবে নেদারল্যান্ডস।

যেটি তাদের জন্য একটি ভালো সুযোগ বয়ে আনবে।

৯. বাংলাদেশ

বিশ্বকাপের শুরুটা দুর্দান্ত হলেও শেষ পর্যন্ত বাজে পারফরম্যান্সের কাছে সেমিফাইনাল থেকে অনেকটা দূরে সরে গিয়েছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ সাতটি ম্যাচ খেলেছে এখন পর্যন্ত, যেখানে তারা জয় পেয়েছে কেবল একটি ম্যাচে। বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল খেলার সম্ভবনা শেষ, একইসাথে সরাসরি ২০২৫ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার সুযোগ হাতছাড়া হয়েছে বাংলাদেশের।

১০. ইংল্যান্ড

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন দল ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ মিশন হাতছাড়া হয়েছে অনেক আগেই। পয়েন্ট তালিকায় সর্বশেষ অবস্থানে থাকা দল ইংল্যান্ড। ইংল্যান্ড সর্বমোট ছয়টি ম্যাচ খেলে জয় পেয়েছে কেবল একটি ম্যাচে।

তাদের অবশিষ্ট রয়েছে দুটি ম্যাচ। দুটি ম্যাচে জয় পেলে পয়েন্ট তালিকায় কিছুটা উন্নতি হবে তাদের।

এটি ছিল বিশ্বকাপে দশটি দলের সেমিফাইনাল খেলার সমীকরণ বিশ্লেষণ। বিশ্বকাপের খেলা ইতিমধ্যেই শেষ পর্যায়ে পৌঁছেছে।

আপনার ভবিষ্যৎবাণী অনুযায়ী কোন চারটি দল খেলবে সেমিফাইনাল সেটি জানিয়ে দিতে পারেন মন্তব্য করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *